সিলেটকে হারিয়ে সেমিফাইনালে রংপুর

sl vs rrস্পোর্টস রিপোর্টার : দ্বিতীয় দল হিসেবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) চলতি আসরে শেষ চারে জায়গা করে নিয়েছে সাকিব আল হাসানের রংপুর রাইডার্স। সোমবার দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে সিলেট সুপার স্টারসকে আট উইকেটে হারিয়ে শেষ চারের টিকিট পায় তারা। এর আগে দিনের প্রথম ম্যাচে বরিশাল বুলসকে ৭ উইকেটে হারিয়ে নকআউট পর্ব নিশ্চিত হয় মাশরাফির দল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের। আট ম্যাচে ছয় জয়ে ১২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে কুমিল্লা। অন্যদিকে নয় ম্যাচে সমান ১২ পয়েন্ট রংপুরেরও (ছয় জয়)। তবে কুমিল্লার চেয়ে রান রেটে পিছিয়ে থাকায় সাকিব শিবির রয়েছে দ্বিতীয় স্থানে। অপর দিকে বাজেভাবে হারলেও এখনও শেষ চারে উঠার স্বপ্ন গুড়িয়ে যায়নি সিলেটের। আট ম্যাচে চার পয়েন্ট নিয়ে (দুই জয়, ছয় হার) তালিকায় পঞ্চম স্থানে রয়েছে সিলেট।

রংপুর রাইডার্সের বিরুদ্ধে টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ের মধ্যে পড়ে সিলেট সুপার স্টার্স। দলীয় এক রানের মাথায় বিদায় নেন মুনাবিরা। পাঁচ বলে শূন্য রান করা মুনাবিরা সরাসরি বোল্ড হন আরাফাত সানির বলে। এরপর আরেক ওপেনার জুনাইদ সিদ্দিকীর বিদায়। এবারও বোলার রংপুরের আরাফাত সানি। নিজের বলে নিজেই ক্যাচ ধরে সাজঘরে ফেরত পাঠান ৬ বলে ৫ রান করা জুনাইদকে। কিছু বুঝে উঠার আগেই বিদায় নেন মুশফিকও। ১০ বলে ৯ রান করেন তিনি। এবারও উইকেট শিকারী সেই আরাফাত সানি। দলীয় রান তখন ২৪। এরপর এক রান যোগ হতেই সাকিব আল হাসানের আঘাত। বিদায় করেন ১০ বলে ৮ রান করা নূরুল হাসানকে। আফ্রিদি তিন বলে করেছেন মাত্র চার রান। এরপর দলীয় স্কোরে এক রান যোগ হতেই বিদায় নেন নাজমুল হোসেন মিলন। তিন বলে শূন্য রান করে তিনি ফেরেন আরাফাত সানির বলে বোল্ড হয়ে। বোপারা ফিরে যান পেরেরার বলে। আব্দুর রাজ্জাক মোহাম্মদ নবীর শিকার হয়ে ৪ রানে প্যাভিলিয়নে ফিরে যান। ৪৩ রানেই ৮ উইকেট হারিয়ে বিপাকে পড়ে সিলেট। সোহেল তানভীর দলের পক্ষে ২০ রানের একটি গুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলে লং অনে মোহাম্মদ নবীর বলে মুক্তার আলীকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন। যখন রুবেল ক্রিজে নেমে শূন্য রানে নবীর বলে ক্যাচ হলে সবক’টি উইকেট হারিয়ে সিলেটের সংগ্রহ ছিল মাত্র ৫৯ রান। রংপুর রাইডার্সকে জয়ের জন্য মাত্র ৬০ রান করতে হবে। রংপুরের পক্ষে আরাফাত সানি ১৪ রানে ৪ উইকেট, সাকিব ২৫ রানে ২, নবী ১৫ রানে ৩ ও পেরেরা ৪ রান দিয়ে একটি উইকেট নেন।

৬০ রানের লক্ষ্য নিয়ে খেলতে নেমে যদিও মাত্র ২২ রানের মধ্যে দুই ওপেনার লেন্ডল সিমন্স (৫) ও সৌম্য সরকারের (১১) উইকেট হারায় রংপুর। দুই ওপেনারকেই সাজঘরে ফেরত পাঠিয়েছেন সিলেটের বোলার মোহাম্মদ শহীদ। সাকিব আল হাসান ও জহুরুল ইসলামের জন্য বাকি পথ পাড়ি দিতে কোনো বেগ পেতে হয়নি। ৯.৫ ওভারে দুই উইকেট হারিয়েই লক্ষ্যে পৌঁছে রংপুর। সাকিব ২৪ বলে ২৯ এবং জহুরুল ১৩ বলে ৯ রান করে অপরাজিত থাকেন।

শেয়ার করুন