ক্রীড়াঙ্গনের সফল নাম এহিয়া রেজা চৌধুরী

20151211_185401স্পোর্টস রিপোর্টার : ‘এহিয়া রেজা চৌধুরী ছিলেন বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী। ক্রীড়াঙ্গন, সাহিত্য, সাংবাদিকতা, রাজনীতিসহ সকল ক্ষেত্রেই ছিল তাঁর অবাধ বিচরণ। তিনি যেখানেই প্রবেশ করেছেন সেখানেই সফলতার মুখ দেখেছেন। এমন একজন মানুষ পৃথিবী থেকে চলে যাওয়া সত্যিকার অর্থেই অপূরণীয় ক্ষতি। যা কোনকিছুর বিনিময়েই পূরণ করা সম্ভব নয়।’

বাংলাদেশ ক্রীড়ালেখক সমিতি সিলেটের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাবেক সাধারণ সম্পাদক, সিলেট প্রেসক্লাবের ভবন নির্মাণকালীন সাধারণ সম্পাদক এহিয়া রেজা চৌধুরীর স্মরণ সভায় বক্তারা উপরোক্ত কথাগুলো বলেন। ক্রীড়ালেখক সমিতি সিলেট জেলা শাখা আয়োজিত এই স্মরণ সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহিউদ্দিন আহমদ সেলিম। ক্রীড়া লেখক সমিতি সিলেটের সভাপতি মোহাম্মদ বদরুদ্দোজা বদরের সভাপতিত্বে ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আহবাব মোস্তফা খানের পরিচালনায় সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন সিলেট প্রেসক্লাব ও ক্রীড়ালেখক সমিতি সিলেটের সাবেক সভাপতি আব্দুল মালিক চৌধুরী, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাবেক সহ-সভাপতি বিমলেন্দু দে নান্টু, জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সাবেক সভাপতি নূরে আলম খোকন।

মাহিউদ্দিন আহমদ সেলিম বলেন, সিলেট জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদকের মধ্যে সবচেয়ে সফল ছিলেন এহিয়া রেজা চৌধুরী। সিলেটের ক্রীড়াঙ্গনের জন্য তাঁর দরদ, ত্যাগ ও ভালোবাসার দৃষ্টান্ত এখনো অনেকের কাছে অমলিন। সিলেটের ক্রীড়াঙ্গন যখন আবারো জেগে উঠতে শুরু করেছে, তখনই তিনি চলে গেলেন না ফেরার দেশে। যা ক্রীড়াঙ্গনের জন্য অপূরণীয় ক্ষতি।

আব্দুল মালিক চৌধুরী বলেন, এহিয়া রেজা চৌধুরী ছিলেন বহুমুখী প্রতিভার অধিকারী। তাঁর কর্মদক্ষতা, নিষ্ঠা আর ত্যাগ নিঃসন্দেহে অনুকরণীয়। সাহিত্য, সাংবাদিকতা, ক্রীড়াঙ্গন কিংবা রাজনীতিতে যেখানেই তিনি গেছেন, সেখানেই সফলতার মুখ দেখেছেন।

সভাপতির বক্তব্যে মোহাম্মদ বদরুদ্দোজা বদর বলেন, এহিয়া রেজা চৌধুরী নিজ গুণে একটি প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছিলেন। তাঁর হাত ধরে অনেকেই সিলেটের সাংবাদিকতা, ক্রীড়াঙ্গণে ও রাজনীতিতে প্রবেশ করেছেন। যারা আজ সমাজে প্রতিষ্ঠিত। কর্মগুণে তিনি সকলের কাছে অমর হয়ে থাকবেন।

শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টায় আযোজিত স্মরণ সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন ক্রীড়ালেখক সমিতি সিলেটের কার্যনির্বাহী সদস্য শফিকুর রহমান চৌধুরী। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ফুটবল সংগঠক দুলাল আহমদ, ক্রীড়া লেখক সমিতির সদস্য মোস্তাফিজ রুমান ও মিজান আহমদ চৌধুরী। শুরুতেই কোরআন তেলাওয়াত করেন মাহবুবুর রহমান।

শেয়ার করুন