দখলমুক্ত জল্লারখাল পরিদর্শনে অর্থমন্ত্রী

দখলমুক্ত জল্লারখাল পরিদর্শন করছেন অর্থমন্ত্রী

দখলমুক্ত জল্লারখাল পরিদর্শন করছেন অর্থমন্ত্রী

সিলেটের সকাল রিপোর্টঃ সিলেট মহানগরীর জল্লারপাড়ের জল্লারখাল পরিদর্শন করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত এমপি। শুক্রবার (৬ নভেম্বর) সাড়ে ১০টায় তিনি সরেজমিন উপস্থিত হয়ে জল্লারখালের উদ্ধার হওয়া ভূমি ঘুরে ঘুরে দেখেন। পরিদর্শনকালে সিলেট সিটি কর্পোরেশনের জল্লারখাল উদ্ধার অভিযানের সার্বিক কার্যক্রম সম্পর্কে অর্থমন্ত্রীকে অবহিত করেন সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা এনামুল হাবীব।
এসময় অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত গত দুই সপ্তাহজুড়ে সিলেট সিটি কর্পোরেশন কর্তৃক চলমান থাকা জল্লারখাল দখলমুক্ত করার অভিযানকে সাধুবাদ জানিয়ে বলেন, এক সময় সিলেট মহানগরীর বিভিন্ন এলাকায় একাধিক মুক্ত জলাশয় বা জলাধার ছিল। যুগের পর যুগ থেকে এগুলো মহানগরীর পানি নিষ্কাশন ও প্রবাহের ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে এসেছে। কিন্তু বর্তমানে ভূমিখেকোদের দৌরাত্মে এসকল জলাশয় ধীরে ধীরে জবরদখল হয়ে যাচ্ছে। এটা হতে দেওয়া যাবে না। এসকল জলাশয়, ছড়া ও খাল যাতে দখল না হয় সেজন্য কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
অর্থমন্ত্রী সিলেট সিটি কর্পোরেশনের উদ্ধার অভিযানে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, শুধুমাত্র জলাশয়, ছড়া ও খাল দখলমুক্ত করলেই চলবে না, এ সকল উদ্ধারকৃত ভূমি যাতে পুনরায় দখল না হয় এবং সবসময় সুরক্ষিত থাকে সেজন্যও প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া জরুরী। অর্থমন্ত্রী জল্লারখালকে সম্পূর্নরূপে দখলমুক্ত করার পর চারিদিকে সীমানা প্রাচীর নির্মাণ করার জন্য নির্দেশনা দেন। জল্লারখালকে ঘিরে একটি দৃষ্টিনন্দন ওয়াকওয়ে এবং লেক তৈরী করা হলে নগরবাসীর জন্য এটি একটি মনোরম লোকেশন হবে বলেও মতপ্রকাশ করেন তিনি।
সিলেট সিটি কর্পোরেশনের প্রধান প্রকৌশলী (ভারপ্রাপ্ত) নুর আজিজুর রহমান জানান, জল্লারখালের সাথে জিন্দাবাজার থেকে প্রবাহিত ছড়া এবং তালতলা দিয়ে প্রবাহমান বলরামের খালের সংযোগ স্থাপন করা হবে। এজন্য সিলেট সিটি কর্পোরেশন নতুন উদ্যোগ গ্রহণ করার কথাও জানান তিনি।
পরিদর্শনকালে অর্থমন্ত্রীর সাথে উপস্থিত ছিলেন সিলেট সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আশফাক আহমদ, সিলেট সিটি কর্পোরেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল মালেক, এসিসট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার অরবিন্দ দেবসহ প্রকৌশল বিভাগের অন্য কর্মকর্তাবৃন্দসহ এলাকার স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

শেয়ার করুন