জেল হত্যার ধারাবাহিকতা আজও চলছে : সিলেট গণজাগরণ

IMG_0183সিলেটের সকাল : সিলেট গণজগরণ মঞ্চের সভায় বক্তারা বলেছেন, জাতীয় চার নেতার স্বপ্নের অসাম্প্রদায়িক, ধর্মনিরপেক্ষ ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বাংলাদেশ এখনো গঠন করা যায়নি। আজও উগ্রবাদীদের হাতে খুন হতে হচ্ছে মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের মুক্তবুদ্ধি চর্চার মানুষদের। জেল হত্যার ধরাবাহিকতা আজও চলছে।

লেখক-প্রকাশকদের হত্যা ও হত্যাচেষ্টার প্রতিবাদে মঙ্গলবার গণজাগরণ মঞ্চ আহুত হরতাল পরবর্তী সভায বক্তারা এসব কথা বলেন। সকাল ১০ টায় চৌহাট্টা থেকে হরতালের সমর্থনে মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি চৌহাট্টা থেকে কোর্ট পয়েন্ট ঘুরে ফের চৌহাট্টায় গিয়ে সমাবেশে মিলিত হয়।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, দেশে একের পর এক লেখক-প্রকাশক-ব্লগার হত্যার ঘটনা ঘটলেও খুনিদের গ্রেফতারে ব্যর্থ হচ্ছে প্রশাসন। খুনিদের বিচার মুখোমুখি করা যাচ্ছে না। ফলে খুনিরা আরো আস্কারা পাচ্ছে। খুনের ঘটনা বেড়েই চলছে।

১৯৭৫ সালের ৩ নভেম্বর জেলের ভেতরে খুন হ্ওয়া চার জাতীয় নেতার প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করে বলেন, এই চার নেতার স্বপ্ন ছিলো অসাম্প্রদায়িক ও ধর্মনিরপে বাংলাদেশ। এই স্বপ্ন নিয়েই মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্ব দিয়েছেন তাঁরা। একই ল্েয নিজেদের প্রাণও বিসর্জন দিয়েছেন, তবু কখনো আপোস করেননি।

বক্তারা, দীপনসহ এ যাবতকালে খুন হওয়া সকল লেখক-প্রকাশক-ব্লগার হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার দাবি জানান। অন্যথায় আরো কর্মসূচী দেওয়া হবে বলে জানানো হয় সমাবেশ থেকে।

গণজাগরণ মঞ্চ, সিলেটের মুখপাত্র দেবাশীষ দেবু’র সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মহানগর মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার ভবতোষ রায় বর্মন রানা, প্রবীণ রাজনীতিবিদ বাদল কর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক খালিদ হাসান ও জুয়েল মিয়া, জেলা যুব ইউনিয়েনর সাধারণ সম্পাদক বজলুল আলম বিদ্রোহী আবির, যুব মৈত্রীর কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক হিমাংশু মৈত্র, কবি আবিদ ফায়সাল, কবি ধ্রুব গৌতম, গণজাগরণ মঞ্চের সংঠক আব্দুল বাতেন, হিতাংশু কর বাবু, বাসদ নেতা প্রণব জ্যোতি পাল, ছাত্র ইউনিয়ন, সিলেটের সভাপতি সহিদুজ্জামান পাপলু, ছাত্রফ্রন্টের সভাপতি পাপ্পু চন্দ, ছাত্রমৈত্রী সভাপতি স্বপন দাশ, মাসুম আহমদ প্রমুখ।

শেয়ার করুন