জায়গা এমসি কলেজের : কার্যালয় হচ্ছে যুবলীগের!

2বিশেষ প্রতিবেদক : সিলেটের শতবর্ষী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান এমসি কলেজের জায়গার প্রতি এবার লোলুপ দৃষ্টি পড়েছে ছাত্রলীগের বহিষ্কৃত এক নেতার। তিনি কলেজের জায়গায দখল করে ‘যুবলীগের কার্যালয়’ স্থাপনের জন্যে একটি পাকা ঘর নির্মাণ করাচ্ছেন। এটি উচ্ছেদ করতে নোটিশ দেওয়া হলেও তিনি তা আমলে নিচ্ছেন না। এই দখল স্থায়ী হলে কলেজের প্রায় ৫০ একর জায়গা বেহাত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে।

সূত্র জানিয়েছে, বালুচর রাস্তার পূর্ব দিকে থাকা কলেজের জায়ায়  ‘যুবলীগের কার্যালয়’ বানাচ্ছেন সিলেট জেলা ছাত্রলীগের বরখাস্ত হওয়া সভাপতি হিরন মাহমুদ নিপু। ২০১৩ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর সিপিবি-বাসদের বিভাগীয় সমাবেশে ছাত্রলীগ হামলা চালায়। এতে নেতৃত্ব দেওয়ার অভিযোগে ওই দিন রাতেই হিরনকে বরখাস্ত করে তাৎক্ষণিকভাবে জেলা কমিটি বিলুপ্ত করা হয়।

সরেজমিন দেখা যায়, বালুচরের রাস্তার দিকে ঘরটি নির্মাণ করা হয়েছে। এর একাংশ কলেজের জায়গা ও অন্য অংশ ছড়ার উপর। ছাত্রাবাসের জায়গায় রাজনৈতিক সংগঠনের কার্যালয় হলে বালুচর রাস্তার পূর্ব দিকে থাকা কলেজের প্রায় ৫০ একর জায়গা অবৈধ দখলে চলে যেতে পারে বলে আশঙ্কা এলাকাবাসীর।

জায়গা দখলের বিষয়ে হিরন মাহমুদের যুক্তি, ‘কলেজের আরও অনেক জায়গা দখল হয়েছে। সেগুলো উচ্ছেদে কর্তৃপক্ষ কিছুই করে না। দোষ কেবল আমার  বেলায়! কলেজ কর্তৃপক্ষ  দখল হওয়া জায়গা উদ্ধারের নিশ্চয়তা দিলে নির্মিত পাকা ঘর তিনি নিজেই ভেঙে দেবেন বলে জানান।

শিক্ষানুরাগী রাজা গিরিশ চন্দ্র রায়ের পিতামহ মুরারীচাঁদের নামানুসারে ১৮৯২ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয়  মুরারীচাঁদ কলেজ। সেটি এখন সংক্ষেপিত এমসি কলেজ নামে প্রসিদ্ধ। ১৯২১ সালে কলেজের প্রায় ২০ কেদার জায়গাজুড়ে নির্মিত হয় ছাত্রাবাস। ব্রিটিশ আমলের স্থাপত্যশৈলীর ‘সেমি পাকা আসাম টাইপ’ ভবনগুলোও ঐতিহ্যবাহী স্থাপনা হিসেবে সমাদৃত।

এ বিষয়ে কলেজ অধ্যক্ষ নিতাইচন্দ্র চন্দ বলেন, এই পাকা ঘর অপসারণে দখলদারদের গত বৃহস্পতিবার নোটিশ দেওয়া হয়েছে। সাত দিনের মধ্যে অপসারণ করা না হলে আইনি ব্যবস্থার মধ্যে ছাত্রাবাসের জায়গা দখলমুক্ত করা হবে।

হিরন মাহমুদের মাধ্যমে ‘মহানগর যুবলীগের কার্যালয়’ স্থাপন হচ্ছে কি না, এমন প্রশ্নে সিলেট মহানগর যুবলীগের আহ্বায়ক আলম খান জানান, হিরন মাহমুদ যুবলীগের কেউ নন। ছাত্রলীগের বরখাস্ত হওয়া নেতা। তাই কোথাও যুবগলীগের কার্যালয় খোলার এখতিয়ার তার নেই।  যুবলীগের নাম ভাঙিযে কোনো কিছু করা হলে এর দায়ভার আমরা নেব না। এ ব্যাপারে কলেজ কর্তৃপক্ষের কাছে তাদের অবস্থান পরিষ্কার করবেন বলেও জানান।

শেয়ার করুন