গোয়াইনঘাটে শিশু হত্যায় দুই জনের যাবজ্জীবনসহ ৯ জনের সাজা

download (2)সিলেটের সকাল : গোয়াইনঘাটে শিশু সোবহান ইনসান (১৩) হত্যায় দুই জনের যাবজ্জীবন ও সাত জনের দশ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন বিচারক। সোমবার সিলেটের অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ তৃতীয় আদালতের বিচারক মোহাম্মদ ওয়ালিউল ইসলাম এই রায় দেন।
রায়ে সোবহান হত্যার আসামি জালাল উদ্দিন ও নুর মিয়াকে যাবজ্জীবন ও ৩০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৬ মাসের সশ্রম কারাদ- প্রদান করা হয়েছে।
রায়ে মামলার আসামি আসাব আলী, তাজুল ইসলাম, হাছন আলী, বিল্লাল উদ্দিন, কলিম উল্লা, আতর আলী ও সুরুজ আলীকে ১০ বছরের সশ্রম কারাদ- এবং ৩০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও ৬ মাসের সশ্রম কারাদ- প্রদান করা হয়েছে। এই মামলায় মোট আসামি ছিলেন ১৪ জন। এরমধ্যে একজনের (মহররম আলী) বিচারচলাকালে মৃত্যু ও বাকিরা পলাতক রয়েছেন।
মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০০৯ সালের ২৪ জুলাই গোয়াইনঘাট থানাধীন গুরকাছি বাজারে হামলা চালিয়ে গুরুতর আহত করা হয় আব্দুস সোবহান ওরফে ইনসাসকে। সে তার বাবা আব্দুল করিম ও ভাই মাওলানা আব্দুল মান্নানের সাথে ওই বাজারে নিজেদের ভিটায় ঘর নির্মাণ করছিল। এসময় আসামিরা তাদের ওপর হামলা চালায়। হামলায় গুরুতর আহত ইনসানকে প্রথমে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে, ওখান থেকে ঢাকায় স্থানান্তর করা হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় ২৫ জুলাই ইনসান মারা যায়। এই ঘটনায় তার ভাই মাওলানা আব্দুল মান্নান বাদি হয়ে ১৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। সেই মামলায় সোমবার রায় দিলেন আদালত। রায় ঘোষণার সময় পলাতক আসামি নূর মিয়া, তাজুল ইসলাম ও সিরাজ উদ্দিন ছাড়া বাকি আসামিরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।

রাষ্ট্রপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন এপিপি. মোস্তফা দিলওয়ার আল আজহার, বাদি পক্ষে সিলেটের সাবেক পিপি এমাদ উল্লাহ শহিদুল ইসলাম। আসামিপক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন এডভোকেট মো. লালা, এডভোকেট মো. নূরুল হক, এডভোকেট বিভাষ চন্দ্র দাস এবং এডভোকেট গোলাম ইয়াহইয়া চৌধুরী। পলাতকদের পক্ষে রাষ্ট্র নিয়োজিত আইনজীবী হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এডভোকেট তমাল চন্দ্র নাথ।

শেয়ার করুন