ইরাকে বন্দুকের মুখে ১৮০ বাংলাদেশি

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

সকাল ডেস্ক : ইরাকে ১৮০ জন বাংলাদেশির পাসপোর্ট কেড়ে নিয়ে বন্দুকের মুখে আটকে রাখা হয়েছে বলে অভিযোগ করছেন আটককৃতদের পরিবার। রিক্রুটিং এজেন্সির প্রতারণার ফাঁদে আটকে যায় তারা। কাতার নেবার নাম করে ইরাকে পাঠানো হয় তাদের। কিন্তু আটককৃতদের দেশে ফেরানোর ব্যাপারে বাংলাদেশ সরকার কোন ধরণের পদক্ষেপ নিচ্ছে না বলে অভিযোগ করা হচ্ছে। এমন অবস্থার মুখাপেক্ষি হয়ে বিষয়টি তুলে ধরতে বুধবার ঢাকায় একটি সংবাদ সম্মেলন করছে তারা।

জানা গেছে, বাংলাদেশি শ্রমিকরা প্রায়ই রিক্রুটিং এজেন্সিগুলোর প্রতারণার শিকার হচ্ছেন। ইরাকে আটকে পড়া ১৮০ জন বাংলাদেশির পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করছে, তাদের দেশে ফিরিয়ে আনতে সরকার কোন ব্যবস্থায় গ্রহণ করছে না।

জানা যায়, গত মে মাসে ঢাকার একটি রিক্রুটিং এজেন্সি ঐ বাংলাদেশিদেরকে চাকুরী দিয়ে কাতারে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে ইরাকের নাজাফে নিয়ে যায়। সেখানে তাদের পাসপোর্ট কেড়ে নিয়ে আটকে রাখা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

বিষয়টি সরকারের বিভিন্ন পর্যায়ে এবং বাংলাদেশ দূতাবাসে জানানোর পরও তাদের উদ্ধার করে প্রত্যাবাসনের কোন উদ্যোগ নেয়া হচ্ছেনা বলেও অভিযোগ উঠেছে।

আজকের সংবাদ সম্মেলনের মূল উদ্যোক্তা রাইটস, যশোর নামে একটি মানবাধিকার সংস্থার প্রধান বিনয় কৃষ্ণ মল্লিক আটকে পড়া বাংলাদেশিদের বিষয়টি নিয়ে অনেকদিন ধরেই সরকারের সঙ্গে দেন-দরবার করছেন।

এই ১৮০ জন বাংলাদেশিকে ইরাকের একটি কোম্পানিতে বন্দুকের মুখে আটক রাখা হয়েছে বলে জানান বিনয় কৃষ্ণ মল্লিক। সেখানে তারা খাবার ও পানির সমস্যায় ভুগছিল বলেও জানান তিনি। সরকারকে বিষয়টি জানানোর পর এক সপ্তাহের মধ্যে ব্যাপারটি সুরাহা করার কথা জানালেও কোন অগ্রগতি হয়নি। আটকে পড়া বাংলাদেশিদের সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করা হচ্ছে বলে জানান বিনয় কৃষ্ণ মল্লিক।

শেয়ার করুন