জিলু হত্যার মামলার প্রধান আসামী শাহী জেলহাজতে

50000সিলেটের সকাল রিপোর্ট: ছাত্রদল নেতা জিল্লুল হক জিলু হত্যা মামলার প্রধান আসামী বিএনপি নেতা মাহবুব কাদির শাহীকে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির হয়ে জামিনের প্রার্থনা জানালে আদালত তাকে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন। এর আগে গত মঙ্গলবার আরো ৬ ছাত্রদল নেতা-কর্মীকে জেল হাজতে পাঠানো হয়।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সিলেট মেট্টোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট ১ম আদালতে (জি আর নং- ১৯২/১৪) মামলায় আত্মসমর্পণ করলে ভারপ্রাপ্ত বিচারক আনোয়ারুল হক জামিন না মঞ্জুর করে কারাগারে প্রেরণের জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেন।

আদালত সূত্র জানায়, এই হত্যাকান্ডের পর বিএনপি নেতা শাহী হাইকোর্টের জামিনে ছিলেন। হাইকোর্টের নির্দে

শনা অনুযায়ী বৃহস্পতিবার তিনি আদালতে আত্নসমর্পন করে জামিনের প্রার্থনা জানান। আদালত জামিন নামঞ্জুর করে তাকে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন।

উল্লেখ্য, গত ২৭ জুন অভ্যন্তরীন দ্বন্দ্বের জের ধরে নগরীর পাঠানটুলায় নিজ দলের ক্যাডাররা কুপিয়ে গুরুতর আহত করে ছাত্রদল নেতা জিল্লুল হক জিলুকে। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ মামলা মঙ্গলবার সকালে মহানগর হাকিম ২য় আদালতে ৬ ছাত্রদল কর্মী হাজির হয়ে জামিন প্রার্থনা করলে আদালতের বিচারক ফারহানা ইয়াসমিন ৬ ছাত্রদল নেতা-কর্মীর জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরণের নির্দেশ দেন। এর আগে গত ২৯ অক্টোবর ওই ৬ নেতাকর্মী উচ্চ আদালত থেকে অর্ন্তবর্তীকালীন জামিনে ছিলেন। জামিন নামঞ্জুর হওয়া নেতাকর্মীরা হলেন- জকিগঞ্জ উপজেলা ছাত্রদলের সিনিয়র সহ সভাপতি সালেহ আহমদ খান, মদন মোহন কলেজ ছাত্রদলের সিনিয়র সহ সভাপতি হেলাল আহমদ, মদন মোহন কলেজ ছাত্রদল নেতা দেওয়ান আরাফাত জাকি, নেছার আলম শামীম, মহানগর ছাত্রদল নেতা ইমাদ আহমদ চৌধুরী ও মনোয়ার হোসেন মঞ্জু।

শেয়ার করুন