ছাত্রলীগকে দাপট না দেখানোর পরামর্শ যোগাযোগমন্ত্রীর

ছাত্রলীগকে দাপট না দেখানোর পরামর্শ দিয়েছেন যোগাযোগ মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। শুক্রবার গোবিন্দগঞ্জে বটেরখাল ব্রীজের উদ্বোধনশেষে আয়োজিত সমাবেশে মন্ত্রী বলেন, ছাত্রলীগের নামে অপকর্ম করবেন আর এর খেসারত আমরা দেব-তা হতে পারে না। দলীয় নেতা-কর্মীদের মানুষের সাথে খারাপ আচরণ না করার পরামর্শ দিয়ে তিনি বলেন,এতে সরকারের বদনাম হবে। সকল উন্নয়ন ও সুনাম বিফলে যাবে।
পদ্মা সেতুর প্রসঙ্গ উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বিশ্ব ব্যাংক টাকা না দিলেও বিকল্প ব্যবস্থাপনায় এটি নির্মাণ করা হবে। তিনি বর্ষা মওসুমের আগে সুনামগঞ্জের অসমাপ্ত রাস্তাÑঘাট ও ব্রীজ কালভার্টের নির্মাণ কাজও শেষ করার ঘোষণা দেন।
মন্ত্রী বলেন, উন্নয়নের ক্ষেত্রে দল মত নির্বিশেষে সকলকে এক হতে হবে। এখানে আওয়ামীলীগ আর বিএনপি দেখলে চলবে না। উন্নয়ন সকলের । এর সুফল সবাই ভোগ করবে।
ছাতক উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক লুৎফুর রহমান সরকুমের সভাপতিত্বে ও সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফজলুর রহমানের পরিচালনায় সমাবেশে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন সুনামগঞ্জ-৫ আসনের এমপি মুহিবুর রহমান মানিক। অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সিলেট জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুজ জহির চৌধুরী সুফিয়ান, যুগ্ম সম্পাদক অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক, দোয়ারা উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক ইদ্রিস আলী বীর প্রতীক, ছাতক উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি আবরু মিয়া তালুকদার, সধারণ সম্পাদক ছানাউর রহমান ছানা,যুগ্ম সধারণ সম্পাদক সৈয়দ আহমদ প্রমুখ।
পরে মন্ত্রী সুনামগঞ্জ সার্কিট হাউসে জেলা আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতাদের সাথে মতবিনিময় করেন।
এছাড়া, যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের শুক্রবার সুনামগঞ্জ থেকে সিলেট ফেরার পথে ছাতক পৌর মেয়র আবুল কালাম চৌধুরীর আমন্ত্রণে ছাতক শহরস্থ মেয়রের বাসভবনে যার। রাত ৮টা ২৫ মিনিটে ছাতক শহরে পৌঁছামাত্র মন্ত্রীকে স্বাগত জানান পৌর মেয়র আবুল কালাম চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক ডাঃ হারিছ আলী ও সাবেক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ নেতা শামীম আহমদ চৌধুরী। এ সময় দলের নেতাকর্মীরা মন্ত্রীকে স্বাগত জানিয়ে বিভিন্ন শ্লোগান দেয়।

শেয়ার করুন