ধর্মপাশায় বজ্রপাতে নিহতের সংখ্যা ১৩ জনে উন্নিত : দাফন সম্পন্ন

সুনামগঞ্জের ধর্মপাশা উপজেলার জয়শ্রী ইউনিয়নের সরস্বতীপুর গ্রামে বজ্রপাতে নিহতদের সংখ্যা ১৩  উন্নিত হয়েছে। শুক্রবার ১০ জনের মৃত্যু হয়। আহত হয় আরো ২০ জন। এদের মধ্যে তিনজন মারা গেছেন। শনিবার দুপুর ১টায়  সরস্বতীপুর গ্রামের মাদ্রাসা মাঠে ও স্থানীয় ছোট মসজিদ প্রাঙ্গণে নিহতদের নামাজে জানাজা সম্পান্ন হয়। জানাজায় উপস্থিত ছিলেন সুনামগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোয়াজ্জেম হোসেন রতন, তাহিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অনিসুল হকসহ প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্তকর্তারা।
ঘটনাস্থল থেকে তাহিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনিসুল হক জানান, নিহত ইমাম সাহাব উদ্দিনসহ ৩ জনের জানাজা হয় গ্রামের ছোট মসজিদ প্রাঙ্গণে এবং অপর ১০ জনের জানাজা অনুষ্ঠিত হয় মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে।
ধর্মপাশা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বায়েছ আলম বাংলানিউজকে জানান, জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিহতদের পরিবারকে সহায়তা বাবদ প্রতিজন নিহতের বিপরীতে ৫ হাজার টাকা থেকে বাড়িয়ে ২০ হাজার টাকা করা হয়েছে এবং আহত ব্যক্তিদের চিকিৎসার ব্যয় প্রশাসন গ্রহন করেছে।
তিনি আরও জানান, প্রত্যেক নিহতের পরিবারকে স্থানীয় সংসদ সদস্য  মোয়াজ্জেম হোসেন রতন ৫ হাজার টাকা তার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে এবং তাহিরপুর  উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আনিসুল জনপ্রতি ৫ হাজার টাকা করে এবং আহতদের চিকিৎসার জন্য জনপ্রতি ২ হাজার টাকা করে অনুদান দিয়েছেন।
ধর্মপাশা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শহিদুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নগদ ৫ হাজার টাকা এরই মধ্যে দেওয়া হয়েছে এবং  রোববার বাকি ১৫ হাজার টাকা দেওয়া হবে।
এদিকে, শনিবার দুপুরে সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক ইয়ামিন চৌধুরী এবং সিলেট রেঞ্জের ডিআইজি মকবুল হোসেনসহ সুনামগঞ্জের পুলিশ সুপার নুরে আলম মিনা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
উল্লেখ্য, শুক্রবার রাতে তারাবির নামাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে বজ্রপাতে স্থানীয় মসজিদের ইমামসহ ১৩ জন নিহত হন। এ ঘটনায় আহত ৬ জনকে ধর্মপাশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

শেয়ার করুন