কম খেলেই ওজন কমে না

কম করে খেলে কি সত্যিই ওজন কমে যায়? এমন কোনো কথা নেই যে কম খেলেই আপনার ওজন কমে যাবে। ওজন কমানোর ড়্গেত্রে অনেক ধারণা প্রচলিত আছে এবং তা ব্যাপকভাবে আমাদের মতো সাধারণ মানুষের মধ্যে প্রচলিত। কিন্তু এসব প্রচলিত ধারণা সব সময় ঠিক হবে, তা কিন্তু নয়। যেমন ধরুন, আমাদের মধ্যে একটি ধারণা আছে, তেল, মাখন বা ঘি ইত্যাদি ফ্যাট বা চর্বিজাতীয় খাবার কম খেলে বা খাওয়া বন্ধ করে দিলে আমাদের ওজন কমে যায় বা কম হতে পারে। আপাতদৃষ্টিতে দেখলে কথাটা সত্যি বলে মনে হয়। কারণ সবাই জানে, অত্যধিক চর্বিজাতীয় খাদ্য শরীরে চর্বির পরিমাণ বাড়িয়ে দিয়ে মোটা করে তোলে। তাই আমাদের স্বাভাবিক ধারণা, চর্বিজাতীয় খাবার কম খেলে আমাদের ওজন ঠিক থাকে বা ওজন কমে যায়। কিন্তু আপনি কি জানেন, একটি সমীড়্গায় জানা গেছে, আমরা যতটা সাধারণ ভাবছি ব্যাপারটা মোটেই ততটা সাধারণ নয়। চর্বি নয়, মোটা না হতে চাইলে বা আপনার শরীর থেকে চর্বি কমাতে চাইলে দেখা দরকার আপনি যত ক্যালোরি খাবারের মাধ্যমে গ্রহণ করছেন তার পরিমাণ ঠিক কিনা। অর্থাৎ আপনার দৈনন্দিন খাদ্যতালিকাতে ক্যালোরির মাত্রা ঠিক রাখা প্রয়োজন। কিছু ড়্গেত্রে অবশ্য ফ্যাটের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখার সঙ্গে সঙ্গে ক্যালোরির মাত্রাও কম হয়ে যায়। কিন্তু চর্বিজাতীয় খাদ্যের পরিমাণ কমানোর ড়্গেত্রে একটি অসুবিধা দেখা যায়। কারণ অধিকাংশ চর্বিজাতীয় খাবারে প্রচুর পরিমাণ প্রোটিন থাকে। অর্থাৎ এই জাতীয় খাবার খাওয়ার পর বেশ কিছু সময় পেট ভরা আছে বলে মনে হয়। আর আপনি বেশি খাবার খাওয়া থেকে বেঁচে যান। সেইসঙ্গে বেশি ক্যালোরি গ্রহণ করা থেকেও বেঁচে যান। এবার হয়তো ক্যালোরি কম করার জন্য চর্বিজাতীয় খাবার খাওয়া বন্ধ করে দিলেন, তার ফলে প্রোটিন গ্রহণের মাত্রাও কম হয়ে গেল, তখন আপনার কিছুড়্গণের মধ্যেই খিদে পেয়ে গেল। সেড়্গেত্রে না চাইলেও কিছু না কিছু আপনি খাবেন। এর দ্বারা হতে পারে আরও বেশি ক্যালোরি গ্রহণ করতে শুরু করলেন। তাই ওজন কম করার ড়্গেত্রে শুধু চর্বিজাতীয় খাদ্য গ্রহণ বন্ধ করার প্রবণতা ওজন কমানোর বদলে তা বাড়িয়েও তুলতে পারে। চরে আপনার খাদ্য তালিকায় ক্যালোরির মাত্রা ঠিক রাখার ব্যবস্থা করুন।

শেয়ার করুন